মুক্ত স্বদেশ জনগণের সেবক হয়ে থাকতে চান হাফিজ | মুক্ত স্বদেশ

জনগণের সেবক হয়ে থাকতে চান হাফিজ


মুক্ত স্বদেশ মার্চ ২৫, ২০২১, ৭:৫১ অপরাহ্ন
জনগণের সেবক হয়ে থাকতে চান হাফিজ

ঝালকাঠি সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ঝালকাঠি পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের বর্তমান কাউন্সিলর হাফিজ আল মাহমুদ জনগণের প্রকৃত সেবেক হয়ে থাকতে চান। এলাকাবাসীর কাছে আস্থার প্রতীক হিসেবে পরিচিত লাভ করেছেন এই হাস্যজ্জল মানুষটি। আদর্শ ও ন্যায় নীতির মধ্যে থেকে

এলাকার মানুষের পাশে থাকাই তার লক্ষ্য। কোন কিছুর লোভ লালসা আর হিংসা তাকে আক্রমন করতে পারেনি। এসব কারনেই এলাকার অনেকেই প্রশংসা করেন তার।

জানা গেছে, করোনা মহামারীর সময় কাউন্সিলর হাফিজ আল মাহমুদ তার ওয়ার্ডের মানুষের পাশে থেকে তাদের সুখ দু:খের সাথী হয়েছেন দিনরাত না ভেবে। তিনি সরকারি বরাদ্দের পাশাপাশি তার নিজস্ব অর্থায়নে রেকর্ড পরিমান খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছেন তার এলাকায়। ২নং ওয়ার্ডে জনসাধারণই সবচেয়ে বেশী সাহায্য সহযোগীতা পেয়েছে এই জনপ্রতিনিধির কাছ থেকে।

করোনার এই দু:সময়ে মানব কল্যাণমূলক কাজের জন্য প্রশংশিত হচ্ছেন কাউন্সিলর হাফিজ। এলাকার বাসিন্দারাও তার কাজ নিয়ে প্রশংসা করছেন। তারা বলছেন, তিনি যেভাবে এই দু:সময়ে মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন, যেভাবে দিন রাত কাজ করে যাচ্ছেন তা দৃষ্টান্তমূলক। সব জনপ্রতিনিধি এভাবে এগিয়ে এলে কোনো সমস্যাই থাকবে না। নিজের সব কাজ ফেলে রেখে ছুটে যাচ্ছেন মানুষের কাজে।

আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা বলেন, শুধু কাউন্সিলর হিসেবেই নয় স্থানীয় আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে তৃণমূল নেতা-কর্মীদের কাছে তার গ্রহণ যোগ্যতা উল্লেখযোগ্য। বঙ্গবন্ধুর আদর্শে উজ্জীবিত দেশরতœ শেখ হাসিনার নিবেদিত প্রাণ কর্মী হিসেবে তিনি একজন সৃজনশীল কর্মীবান্ধব দক্ষসংগঠক। ঝালকাঠি পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডে তার আন্তরিক নির্ভেজাল ভালোবাসাপূর্ণ উৎসর্গ এক বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন তিনি। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের ক্ষুধা-দারিদ্র, শোষণ মুক্ত স্বনির্ভর বাংলাদেশ বিনির্মাণে জননেত্রী শেখ হাসিনা এবং সরকারের নির্দেশনা মোতাবেক তিনি সরকারি বরাদ্দের পাশাপাশি তার নিজস্ব অর্থায়নে তার এলাকায় করেছেন অসংখ্য উন্নয়ন কর্মকান্ড।

মো. আমিন মাঝি নামে আওয়ামী লীগের এক কর্মী বলেন, কাউন্সিলর হাফিজ ভাই ইতিমধ্যেই এতটা জনপ্রিয়তা পেয়েছেন যে তার ওয়ার্ডের জনগণ তথা ঝালকাঠির সর্বত্র এবং তার জনকল্যাণমুখী কাজগুলোই তাকে মানবতার ফেরিওয়ালা হিসেবে পরিচিতি দিয়েছে। অসহায়দের জন্য তিনি একজন অভিবাবকের দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন। তার কাছে গিয়ে খালি হাতে ফিরতে হয়েছে এমন নজির নেই। তিনি তার সাধ্যমতো যতটুকু পেরেছেন সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিচ্ছেন সবসময়।

২নং ওয়ার্ডের এক বাসিন্দা বলেন, কাউন্সিলর হাফিজ একজন সফল ও আদর্শবান জনপ্রতিনিধি হিসেবে নিজেকে ইতিমধ্যে প্রমাণিত করেছেন। আমাদের ২নং ওয়ার্ডে তার প্রতিধন্ধী এখন তিনি নিজেই।

স্থানীয় বাসিন্দারা বলেন, মানুষের কাছে থেকে মানুষের সেবা করাকেই তার জীবনের মূল কাজে পরিণত করেছেন। দুস্থ অসহায় মানুষের কাছে থেকে অনুভব করেন তিনি তাদের কষ্টের আর্তি। জনকল্যাণ মূলক কাজের ভেতর তিনি ভুলে যান নিজের ব্যাক্তি জীবনের কথা। নানা দুর্যোগের সময় মানুষের দ্বারে দ্বারে গিয়ে সাহায্য করেন। তিনি মনে করেন তার ওয়ার্ডের জনগণই তার পরিবারের মানুষ।

এ ব্যাপারে আওয়ামী লীগ নেতা ও কাউন্সিলর হাফিজ বলেন, জনগণের সেবা করার উদ্দ্যেশ্যেই আমার রাজনীতিতে আগমন। তিনি বলেন, আমি আওয়ামী লীগের মাধ্যমে রাজনৈতিক জীবন শুরু করি। বর্তমানে আমি ঝালকাঠি সদর আওয়ামী লীগের দায়িত্ব পালন করছি। রাজনৈতিক কর্মকান্ডের পাশাপাশি এলাকার সাধারণ মানুষের সেবায় বিভিন্ন কর্মকান্ড পরিচালিত করে আসছি। বিগত নির্বাচনেও আমি কাউন্সিলর পদে বিজয়ী হয়ে আমার ওয়ার্ডের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ করেছি এবং সব সময় সাধারণ মানুষের কল্যাণে কাজ করেছি। আমি যতদিন বেঁচে থাকবো জনগণের কল্যাণে এভাবেই কাজ করবো। আমার ওয়ার্ডের সকল পর্যায়ের নাগরিকদের দোয়া ও সমর্থন কামনা করি।

এই নেতা আরও বলেন, আমি এই ওয়ার্ডের মাটির কাছে ঋণি, আমি এই ওয়ার্ডের মানুষের কাছে ঋণি-কোন ব্যক্তিগত চাওয়া পাওয়া নেই আমার, শুধু মানুষের মুখে হাসি ফুটাতে পারলেই নিজের সার্থকতা মনে করি। আমি নিজেকে মানুষের সেবায় উৎসর্গ করেছি। মানুষের জন্য আমার সেবা কখনও থেমে থাকবে না ইনশাআল্লাহ।