মুক্ত স্বদেশ চরফ্যাশন সরকারি হাসপাতালে দালাল নির্মূল কমিটির অভিযানে আটক-৪ | মুক্ত স্বদেশ

চরফ্যাশন সরকারি হাসপাতালে দালাল নির্মূল কমিটির অভিযানে আটক-৪


মুক্ত স্বদেশ জানুয়ারী ২৪, ২০২১, ৯:০১ অপরাহ্ন
চরফ্যাশন সরকারি হাসপাতালে দালাল নির্মূল কমিটির অভিযানে আটক-৪

চরফ্যাশন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দালাল নির্মূল কমিটির আহ্বায়ক ইয়াছিন আরাফাত’র নেতৃত্বে ঝাটিকা অভিযান পরিচালিত হয়েছে৷ এসময় রুগীর ডাক্তারি ব্যবস্থা পত্রসহ আটক করা হয়েছে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ৪জন দালাল৷

রবিবার (২৪ জানুয়ারি) বেলা ১২টার সময় উপজেলা দালাল নির্মূল কমিটির আহ্বায়ক ও সেন্ট্রাল ইউনাইটেড হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারের চেয়ারম্যান ইয়াছিন আরাফাত এর নেতৃত্বে এ অভিযান পরিচালিত হয়েছে৷ অভিযানে বিভিন্ন ঔষধের দোকান ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের ইউসুফ (৩৫), রিয়াদ (২৮), রোমান (২৫), সোহেল (২৩) নামের ৪ জন দালাল কে হাতেনাতে আটক করা হয়৷ পরে সাময়িক শাস্তি দিয়ে আর কোন দিন দালালি না করার অঙ্গিকারের মাধ্যমে ছেড়ে দেয়া হয়৷

এসময় উপজেলা দালাল নির্মূল কমিটির আহ্বায়কের সাথে উপস্থিত ছিলেন, চরফ্যাশন উপজেলা ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার মালিক সমিতির সভাপতি মোঃ শাজাহান মিয়া, সাধারণ সম্পাদক আবুল কাশেম মিলিটারি, সাংগঠনিক সম্পাদক তিতুমীর মিয়াজি, দালাল নির্মূল কমিটির সদস্য সচিব মিল্লাতে এলাহীসহ প্রায় ৮ সদস্যের একটি টিম৷

জানা যায়, চরফ্যাশন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের
ভিতর এবং বাহিরে দীর্ঘ দিন যাবত একটি চক্র সাধারণ রুগী বা অভিভাবক কে প্রথমে মায়ার জালে বন্দী করে নির্দিষ্ট ডায়াগনস্টিক সেন্টারে পরীক্ষা-নিরীক্ষা এবং ঔষধের দোকান থেকে ঔষধ ক্রয় করতে বাধ্য করছে৷ এতে কমিশনের মাধ্যমে দালাল চক্রটি হাতিয়ে নিচ্ছে বিপুল পরিমাণের অর্থ৷ সাধারণ রুগী ও জনগণের এমন অভিযোগের প্রেক্ষিতে চরফ্যাশনের স্বাস্থ্য খাতকে দালাল মুক্ত রাখতে এমন কমিটি গঠন এবং অভিযান পরিচালিত হয়েছে৷ ইতিপূর্বে উপজেলা প্রশাসন একাধিকবার অভিযান পরিচালনা করে গ্রেফতারের মাধ্যমে অর্থদণ্ড আদায় করে ছেড়ে দিয়েছেন৷ তাতে কোন প্রকার সাফল্য আসেনি

দালাল নির্মূল কমিটির আহ্বায়ক ইয়াছিন আরাফাত বলেন, এসকল দালালের কারনে আজ আমরা সম্মান নিয়ে প্রকৃত পরীক্ষা নিরিক্ষার মাধ্যমে রুগীদের সেবা দিতে পারছি না৷ এখানে বেশিরভাগ দালাল ঔষধের দোকানের কিন্তু সাধারণ মানুষ গড়ে আমাদের কে খারাপ মনে করছে৷ মানসম্মানের কথা চিন্তা করে আমরা উপজেলা ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার মালিক সমিতির সিদ্ধান্তে এ উদ্যোগ গ্রহণ করেছি৷ অভিযানে যে কোন প্রতিষ্ঠানের দালাল হাসপাতালে পাওয়া গেলে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে৷ আমরা আপনাদের ও উপজেলা প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা করছি৷ আশা করছি আমরা সফল হবো৷

এদিকে এমন উদ্যোগ গ্রহণ করায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে দালাল নির্মূল কমিটি কে অভিনন্দন ও সাধুবাদ জানাচ্ছে চরফ্যাশন উপজেলার সকল স্তরের মানুষ৷ তারা আশাবাদী এ কমিটির মাধ্যমে দালাল মুক্ত স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত হবে৷