রবিবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২১, ০৮:৩১ অপরাহ্ন

জঙ্গলে প্রেমিকের ঝুলন্ত লাশ, পাহারায় প্রেমিকা

মফস্বল ডেস্কঃ
  • প্রকাশকালঃ শনিবার, ২৬ ডিসেম্বর, ২০২০

মৌলভীবাজারের কুলাউড়ার কর্মধা ইউপির ভারত সীমান্তবর্তী এওলাছড়া পানপুঞ্জির গহীন জঙ্গল থেকে এক তরুণের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এছাড়াও লাশের পাশে পাহারারত অবস্থায় প্রেমিকাকে উদ্ধার করা হয়।

শনিবার (২৬ ডিসেম্বর) সকালে সীমান্তবর্তী নোম্যান্সল্যান্ডে গেঞ্জি দিয়ে গাছের ডালে ফাঁস লাগানো অবস্থায় প্রেমিক শিপনের লাশ পাওয়া যায়। সেই লাশের পাশে পাহারারত অবস্থায় প্রেমিকা এনিকে পাওয়া যায়।

নিহত শিপন স্থানীয় পৃথিমপাশা ইউপির গণকিয়া গ্রামের সিন্ধু মালাকারের ছেলে। এর আগে প্রেমের টানে শিপনের সঙ্গে বাড়ি থেকে বিকেলে বের হয় স্কুলছাত্রী এনি আক্তার।

কুলাউড়া থানার এসআই মহসীন তালুকদার জানান, দুই বছর ধরে শিপন মালাকারের সঙ্গে একই ইউপির কানিকিয়ারি গ্রামের এনি আক্তারের প্রেমের সম্পর্ক চলছিল। বিষয়টি উভয় পরিবার মেনে না নেওয়ায় ২৫ ডিসেম্বর পালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় তারা। বিকেলে শিপন এনিকে তার বাড়িতে নিয়ে যায়। সন্ধ্যার দিকে তারা দুজন ভারতে পলায়নের উদ্দেশ্যে সীমান্তবর্তী এওলাছড়া পুঞ্জির গহীনে চলে যায়। সেখানে তারা অনেক সময় অবস্থান করে। ধারণা করা হচ্ছে, রাতেই প্রেমঘটিত মনোমালিন্যের কারণে শিপন আত্মহত্যা করে।

ঘটনাস্থলে লাশ পাহারারত কিশোরী এনি আক্তার জানান, শুক্রবার বিকেলে শিপন আমাকে বাড়ি থেকে নিয়ে যায়। এরপর রাতে এওলাছড়া পানপুঞ্জির গহীন জঙ্গলে আমরা অবস্থান করি। একপর্যায়ে রাত প্রায় ২টায় শিপনের কাছ থেকে পাহাড়ের নিচে আমি ছিটকে পড়ে যাই। তখন থেকে প্রায় তিন ঘণ্টা আমি অজ্ঞান ছিলাম। শিপনকে অনেক খোঁজাখুঁজি করি। সকালে উঠে দেখি তার পরনের গেঞ্জি দিয়ে গাছের ডালে ফাঁস লাগানো অবস্থায়। এ সময় ঘটনাস্থলে নিজে লাশ পাহারা দিই। আমাদের দুই বছরের প্রেমের সম্পর্ক ছিল।

অতিরিক্ত এসপি (কুলাউড়া সার্কেল) সাদেক কাওসার দস্তগীর বলেন, নিহতের মৃত্যুর সঠিক কারণ তদন্ত ছাড়া বলা যাচ্ছে না। লাশ উদ্ধার করে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে এবং লাশের সঙ্গে পাওয়া কিশোরীকে থানায় এনে জিজ্ঞাসাবাদ করে প্রয়োজনীয় আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো সংবাদ
কারিগরি সহযোগিতায়: শরিফুল ইসলাম
01779911004