ভাতের গরম মাড় ফেলে গৃহকর্মীকে নির্যাতন, নারী আটক

প্রকাশিত: জুন ১২, ২০২১

তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে রাজধানীর উত্তরা এলাকায় নিয়াসা (১৮) নামে এক গৃহকর্মীর গায়ে মাড়সহ গরম ভাত ছোড়ে মেরে দগ্ধ করা হয়েছে। পরে ওই গৃহকর্মীকে প্রথমে ঢাকা মেডিক্যালের শেখ হাসিনা বার্ন ইউনিটে পরে একই হাসপাতলের ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় এক নারীকে আটক করেছে উত্তরা পশ্চিম থানার পুলিশ।

জানা গেছে, উত্তরার পশ্চিম থানার ৯নম্বর সেক্টরের ৭/সি রোডের ২০নম্বর বাড়ির একটি ফ্ল্যাটে এক বছর ধরে কাজ করেন ওই গৃহকর্মী। ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ফাড়ির ইনচার্জ ইন্সপেক্টর বাচ্চু মিয়া জানান, নির্যাতনের শিকার মেয়েটিকে উত্তরা থানার সাব-ইন্সপেক্টর কাঞ্চন রায়হান শুক্রবার বিকালে হাসপাতালের ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টার (ওসিসি)-এ নিয়ে আসেন। তাকে সেখানে ভর্তি করা হয়েছে।

মেয়েটির বরাত দিয়ে ওসিসির সমন্বয়ক ডা. বিলকিস বেগম সাংবাদিকদের জানান, মেয়েটি জানিয়েছে উত্তরার ৯নম্বর সেক্টরের একটি বাসায় গৃহকর্মীর কাজ করে। গত বুধবার সেখানে গৃহকত্রীর মেয়ে সুরভী তার কাছে ভাত চায়। তখন গৃহকর্মী বলেছিল ভাত এখনো চুলায়, হয়নি। তখন তিনি ক্ষিপ্ত হয়ে গরম মাড়সহ ভাত তার শরীরে ঢেলে দেয়। এতে তার শরীর দগ্ধ হয়। এদিকে মেয়েটির এ নির্যাতনের খবর প্রতিবেশীরা ৯৯৯ এর মাধ্যমে পুলিশকে অবহিত করে। পরে পুলিশ গিয়ে তাকে উদ্ধার করে প্রথমে শেখ হাসিনা বার্ন ইউনিটে নিয়ে যায়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে বিকালে তাকে ওসিসিতে ভর্তি করেন। বার্ন ইউনিট সূত্র জানায়, তার পাঁচ শতাংশ দগ্ধ হয়েছে।

উত্তরা পশ্চিম থানার ওসি শাহ মোহাম্মদ আক্তারুজ্জামান ইলিয়াস বলেন, ‘আমরা জানতে পেরেছি ভাতের গরম মাড় নিয়ে যাওয়ার সময় গৃহকর্মীর গায়ে পড়ে যায়। এতে তিনি দগ্ধ হন। বিষয়টি আমরা তদন্ত করে দেখছি যে ঘটনাটি ইচ্ছে করে ঘটানো হয়েছে নাকি অসাবধানতা বশতো পড়েছে।