স্বতন্ত্র প্রার্থীর ১২ কর্মীকে কুপিয়ে জখম

প্রকাশিত: জানুয়ারি ২১, ২০২২

কুমিল্লার দেবীদ্বারে মহিউদ্দিন মিঠু নামে এক স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীর ১২ কর্মীকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করা হয়েছে। শুক্রবার (২১ জানুয়ারি) বিকেলে উপজেলার ধামতী ইউপির ৪নং ওয়ার্ডের খোসকান্দি এলাকায় নৌকা মনোনীত প্রার্থীর নেতাকর্মীরা এ হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ করা হয়। আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ সময় স্বতন্ত্র প্রার্থীর মতবিনিময় সভার প্যান্ডেল, সভা মঞ্চ এবং তিনটি মোটরসাইকেল ভাঙচুর করা হয়েছে। ঘটনার পর থেকে নৌকার কর্মী সমর্থকদের সশস্ত্র মহড়ায় এলাকায় চরম ভীতিকর ও থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও আহতরা জানান, শুক্রবার বিকালে ধামতী গ্রামে স্থানীয়দের উদ্যোগে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মহিউদ্দিন মিঠুর নির্বাচনী মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়। খবর পেয়ে অনুষ্ঠান শুরুর আগেই নৌকার প্রার্থী জসিম উদ্দিনের ভাই শাহ পরানের নেতৃত্বে তরিকুল, মনির, রুবেল, সেলিম, রুহুল আমীন ও হালিমসহ ৩০/৪০ জনের একটি দল দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সেখানে হামলা চালিয়ে পেন্ডেল ও নির্বাচনী অফিস ভেঙ্গে ফেলে।

এ সময় হামলায় আইয়ুব আলী, শরীফ, সফিকুল ইসলাম,শান্ত, জিল্লুর রহমান, বিল্লাল, ইমরান, মেহেদী, রুমান, তফাজ্জল, রাকিব মুন্সী, খোকনসহ ১২ জন আহত হয়। আহতদের মধ্যে আইয়ুব আলী নামের একজনকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অপর আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

এ বিষয়ে চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন মিঠু জানান, হামলার পর নৌকা প্রার্থীর লোকজন তার সমর্থকদের ৩টি মোটরসাইকেল ও সভা মঞ্চ ভাঙচুর এবং ৬টি মোবাইল লুটে নেয়। ঘটনার পর থেকে নৌকার কর্মীরা উল্টো এলাকায় সশস্ত্র মহড়া দিয়ে ভীতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি করছে।

তিনি আরও বলেন, মনোনয়নপত্র দাখিলের পর থেকেই নৌকার প্রার্থীর লোকজন তার সমর্থকদের নানাভাবে হুমকি এবং প্রচারণায় বাঁধা দিয়ে আসছে। নৌকা প্রতীক ছাড়া ভোট দিলে লাশ ফেলে দেয়ারও হুমকি দিয়ে আসছে। তবে নৌকার প্রার্থী জসিম উদ্দিন বলেন, তার কোন লোকজন এ হামলায় জড়িত নেই, কারা হামলা চালিয়েছে তাও তিনি জানেন না বলে জানান।

সন্ধ্যায় দেবীদ্বার থানার ওসি আরিফুর রহমান বলেন, স্বতন্ত্র প্রার্থীর কর্মীদের উপর হামলার ঘটনাটি আমি শুনেছি, ভুক্তভোগীদের পক্ষ থেকে মৌখিকভাবে থানায় জানানো হয়েছে, লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত পদক্ষেপ নেয়া হবে।