শ্রীপুরে ছাত্রলীগ কর্মী যুবককে পিটিয়ে হত্যা 

প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৪, ২০২২

শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধি : গাজীপুরের শ্রীপুরে ছেলেকে ডেকে নিয়ে মারধরের ঘটনায় এক যুবককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারি) রাত আটটার দিকে উপজেলার কাওরাইদ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের নিকটে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত নয়ন শেখ (২৫) কাওরাইদের বেলদিয়া গ্রামের মৃত আব্দুল কাদিরের ছেলে ও কাওরাইদ ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি প্রার্থী। অভিযুক্ত যুবক খায়রুল ইসলাম কাওরাইদ গ্রামের বাসিন্দা ও আওয়ামী যুবলীগের সমর্থক।

পুলিশ, প্রত্যক্ষদর্শী ও নিহতের পরিবারের ভাষ্যমতে, বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারি) দুপুরে খায়রুল ইসলামের ছেলে অনুভব মীর (১৪) কাওরাইদ কে এন উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ক্রিকেট খেলতে যায়। সেখানে পাশের বেলদিয়া গ্রামের জনৈক এক ছেলের সাথে অনুভব এর ঝগড়া-ঝাটি হয়। পরে ওই জনৈক ছেলে তারই প্রতিবেশী বেলদিয়া গ্রামের মৃত আব্দুল কাদিরের ছেলে ছাত্রলীগ কর্মী নয়ন শেখের কাছে অনুভবের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে। পরে নয়ন শেখ অনুভবকে বাড়ি থেকে কাওরাইদ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে ডেকে এনে মারধর করে ছেড়ে দেয়।

খবর পেয়ে অনুভবের বাবা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে গিয়ে নয়ন শেখের কাছে তার ছেলেকে মারধোরের কারণ জানতে চায়। এ নিয়ে অনুভবের বাবা খায়রুল ইসলাম ও নয়ন শেখের মধ্যে বাকবিতন্ডা হয়। এক পর্যায়ে নয়ন শেখ খায়রুল ইসলামকে চেয়ার দিয়ে খায়রুল ইসলামের মাথায় আঘাত করে আহত করে। এসময় খায়রুল ইসলামের লোকজন নয়ন শেখকে ধাওয়া করলে সে আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের পেছন দিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় তাকে ধরে বেদম পিটিয়ে আহত করে। এতে ঘটনাস্থলেই নয়ন শেখ প্রাণ হারায়।

নিহতের বড় ভাই রতন শেখ সাংবাদিকদের জানান, পরিকল্পিতভাবে খায়রুল ইসলাম তার ভাই নয়ন শেখকে লোকজন নিয়ে হামলা চালিয়ে হত্যা করেছে।

শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খোন্দকার ইমাম হোসেন জানান, পুলিশ সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরির জন্য ঘটানস্থলে গেছেন। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ উদ্ধার করে রাতেই গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হবে। এ সংক্রান্ত কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।