ফেসবুক-ইউটিউব নিয়ন্ত্রণ করতে পারবে সরকার

প্রকাশিত: অক্টোবর ২৭, ২০২১

প্রচারের একটি বড় মাধ্যমে পরিণত হয়েছে ফেসবুক-ইউটিউবসহ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম। এসব মাধ্যমে ব্যবহার করে যখন যার যা খুশি, তাই সম্প্রচার করা হচ্ছে। কিন্তু এখন থেকে তা আর করতে পারবে না। সরকারের দৃষ্টিতে গুজব ও ক্ষতিকর সম্প্রচারের বিষয়গুলো চাইলেই বন্ধ করে দিতে পারবে কর্তৃপক্ষ।

ফেসবুক-ইউটিউবসহ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সরকারের নিয়ন্ত্রণ ক্ষমতা বাড়ার ইঙ্গিত দিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।

তিনি বলেছেন, যখনই প্রয়োজন হবে আমরা তখনই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে লাইভ ও ভিডিও বন্ধ করতে সক্ষম হব।

বুধবার (২৭ অক্টোবর)সচিবালয়ে বাংলাদেশ সেক্রেটারিয়েট রিপোর্টার্স ফোরাম (বিএসআরএফ) আয়োজিত সংলাপে অংশ নিয়ে তিনি এ তথ্য জানান।

মোস্তাফা জব্বার বলেন, সম্প্রতি কুমিল্লার ঘটনায় ৩০০ লিংকে আমরা রিপোর্ট করেছি। এবার আমরা ৩৬৪টি লিংক বন্ধ করেছি। ২০১৮ সাল থেকে শুরু করে আমি এখন পর্যন্ত ফেসবুকের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করছি। বাংলাদেশে তাদের বিশাল বাজার। আশা করছি, বাংলাদেশের পরিস্থিতি ফেসবুক-ইউটিউব বুঝতে শুরু করেছে।

টেলিযোগাযোগমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের পক্ষ থেকে যেভাবে চাপ দেওয়া দরকার সেই চাপ অব্যাহত আছে। তার পরিপ্রেক্ষিতে তারা ভ্যাট দেয়।

তিনি বলেন, আমি তথ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেছি। আমরা কুমিল্লার বিষয়ে ফেসবুককে খুব কড়া ভাষায় অবহিত করেছি।

তিনি বলেন, মাথা ব্যথা হলে মাথা কেটে ফেলা সমাধান নয়। ওষুধ দিয়ে সমস্যা সমাধান করতে হবে। এক সময় গুজব রটানো কঠিন হয়ে যাবে।

বিএসআরএফ সভাপতি তপন বিশ্বাসের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মাসউদুল হকের সঞ্চালনায় সংলাপে আরও উপস্থিত ছিলেন প্রধান তথ্য অফিসার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) শাহেনুর মিয়া।